মিস থেকে হলেন মিসেস, চুপিসারে বিয়ে করলেন অভিনেত্রী শ্রুতি ও স্বর্ণেন্দু

অবশেষে সাত পাকে বাঁধা পড়েই গেলেন অভিনেত্রী শ্রুতি দাস ও পরিচালক স্বর্ণেন্দু সমাদ্দার।‌ সোশ্যাল মিডিয়ায় বিয়ের ছবি নিজেরাই ভাগ করে নিয়েছেন। তাদের সহকর্মীদেরও দেখা গেছে বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে। সাধারণত বিয়েতে বাঙালি বধূকে লাল বেনারসিতেই দেখা যায়।

কিন্তু বলিউডের ট্রেন্ড ফলো করে শ্রুতি বিয়েতে পরেছিলেন অফ হোয়াইট বেনারসি। আর তার বেনারসির সাথে মিলিয়েই অফ হোয়াইট রংয়ের পাঞ্জাবি পরেছিলেন স্বর্ণেন্দু। অন্যরকম ধাঁচেই সেজে উঠেছিলেন দুজনে। তাহলে কি টলিউডেও বাঙালি বিয়ের নতুন ট্রেন্ড শুরু হল?

৯ ই জুলাই মধ্যরাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেদের বিয়ের খবর শ্রুতি আর স্বর্ণেন্দু জানিয়েছিলেন। বিয়েতে বেশ কিছু নতুন ট্রেন্ড থাকলেও স্বামীর পদবি নিজের নামের সাথে জুড়তে ভোলেননি শ্রুতি। এখন থেকে শ্রুতি দাস হয়ে গেছেন শ্রুতি দাস সমাদ্দার। এর প্রমাণ মিলে শ্রুতির সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্টে।

অফ‌ হোয়াইট বেনারসির সাথে মিলিয়ে শ্রুতি মাথায় পরেছিলেন টিকলি ও টায়রা। আর গয়না ছিল হালকা রুপোর। অবশ্য স্বর্ণেন্দু সাবেক ধাঁচেই পাঞ্জাবী পরেছিলেন। একই সাথে আইনি ও সামাজিক বিয়ে রেখেছিলেন তারা। বিয়েতেও একটু বদলের ছোঁয়া দেখা গেল। রজনীগন্ধার মালার বদলে একে অপরকে গোলাপের মালা দিয়েই মালাবদল করেন তারা। কিন্তু এই বিয়েতে সিঁদুর অনুপস্থিত ছিল না। স্বর্ণেন্দু শ্রুতিকে সিঁদুরে রাঙিয়ে স্ত্রী হিসেবে গ্রহণ করে নেন।

শ্রুতি একজন বিখ্যাত ধারাবাহিক অভিনেত্রী। তাকে বেশ কয়েকটি ধারাবাহিক এ কাজ করতে দেখা গেছে। বর্তমানে তিনি রাঙা বউ নামক ধারাবাহিকে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করছেন। তার চরিত্রটির নাম পাখি। বিয়ের পর সিঁদুরে রাঙা রূপে তাকে দেখে সত্যিকারেরই ‘রাঙা বউ’ মনে হচ্ছিল। খুব অল্প প্রতি তিনি এই বিয়ে শেষ করেছেন তারা।

ছিল না মিডিয়ার উপস্থিতি‌। সবার প্রথমে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি কেকের ছবি শেয়ার করেছিলেন শ্রুতি। সেই বড় সাদা কেকটিতে লেখা ছিল ‘জাস্ট ম্যারেড’। বেশ কয়েক বছর ধরেই সম্পর্কে ছিলেন তারা। শোনা যায় লিভ ইন করছিলেন তারা। এরপরই হঠাৎ তাদের বিয়ের খবর অনুগামীদের মনে আনন্দ দিয়েছে।

Leave a Comment